অনলাইন আয়ের সবচেয়ে আলোচিত এবং সহজ,পিটিসি সাইট ।


বিসমিল্লাহীর রাহমানীর রাহীম

পিটিসি নিয়ে আমি আগে বলেছি আবার বলছি দেখা যায় এ নিয়ে দেখি মানুষের আগ্রহের কমতি নেই।

আর আমাদের জন্য তো বটেই ।আমরা কাজ করতে চাই কম, আয় করতে চাই বেশি ।আমার মতে,পিটিসি সাইটে আয় করতে চাইলে সময় দিন, বিভিন্ন ফোরাম,ফেসবুক গ্রুপ এবং অনলাইন আয়ের বিভিন্ন Website বা ব্লগ

দিন দিন মানুষের আগ্রহ বেড়েই চলছে।

কারন হিসাবে বলা চলে

# সহজ

# কোন কাজ জানতে হয় না

# ৩০-৪৫ মিনিট সময় ব্যয় করলে হয়।

# আয় কম বলা যাবে না। যেমন আমি নিয়োবাক্সে দেখেছি এখানে অনেকের আয় মাসিক লক্ষ টাকার উপরে (যাদের ডাইরেক্ট রেফারেল ৫০০০+) রেন্টেড কত হত পারে? আমি বিভিন্ন জায়গায়,Web এ এ্যাড দিয়ে রেফারেল বাড়াবার চেষ্টা করি। সেখানে আমি বিভিন্ন দেশের রেফারার পাই। USA,UK,BELZIUM,NETHERLAND,HONGKONG,INDIA,PAKISTAN এরা প্রতিদিন কাজ করে কিন্তু আমাদের দেশের অনেকে এখানে এ্যাকাউন্ট অপেন করে  দেখা যায় নিয়মিত কাজ করে না আবার অনেকে এত অল্প আয় দেখে আগ্রহ হারিয়ে ফেলে। আসুন দেখি ইউরোপ,আমেরিকা পারলে আমরা পারব না কেন।

তাহারা কি কৌশল পালন করে?

আর আজ আপনাদের বিস্তারিত বলার চেষ্টা করব।

PTC এর পুর্ন মিনিং হচ্ছে “Paid To Click” অর্থাৎ বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দাতারা যাদের বিজ্ঞাপনের বাজেট কম তারা তুলনামুলক কম মুল্যে পিটিসি সাইটে এড দেয় কিন্তু সেই এড দেখবে কে? তাই আমার আপনার মত লোকজন সেই এড গুলো দেখি এবং এই এড গুলো দেখার বিনিময়ে পিটিসি সাইট গুলো আমাদের নির্দিস্ট অর্থ প্রদান করে। আপনাকে সাইট গুলো প্রতিদিন একটি নির্দিস্ট পরিমান এড দিবে এবং আপনি সেই এড গুলো দেখবেন এবং প্রতি এড দেখার বিনিময়ে আপনাকে সর্বোচ্চ ১ সেন্ট পর্যন্ত পে করবে (ফ্রি মেম্বারশিপের ক্ষেত্রে) । এছাড়া আপনার রেফারেলে কেউ যদি ওই সাইটে রেজিস্ট্রেশন করে, তবে তাদের দেখা প্রতি এডের বিনিময়ে আপনি পাবেন সর্বোচ্চ ০.৫  সেন্ট করে (মেম্বারশিপের ক্ষেত্রে) । আপনি ভালো সাইট গুলো  থেকে গড়ে রেফারেল ছাড়া দৈনিক ৩-৫ সেন্ট আয় করতে পারবেন।  পিটিসি কাজ সম্পর্ক জানেন তাদের জন্য এই পোষ্ট নয় যারা নতুন তাদের জন্যই আমার এই ক্ষুদ্র প্রয়াস। ইন্টারনেটে অনেকে পিটিসি সাইট আছে যার বেশির ভাগই ভুয়া (scam) পেমেন্ট করেনা। তাই সবার কাছে অনুরোধ থাকবে কোন সাইট দেখেই কোন খোজ খবর না নিয়ে কাজ করা শুরু করবেন না যেন।পিটিসি সাইট গুলোর ৯০% ই ভুয়া অর্থাৎ স্ক্যাম। কিন্তু ওই ১০% পিটিসি থেকে সত্যি আয় করা যায়

আজ আমি আপনাদের কতগুলি টেকনিক শিখিয়ে দিবো যেগুলো মেনে চললে ধরা খাবার সম্ভাবনা খুবই কম থাকবে। ইন্টারনেটে আয় এর অন্যতম উপায় হচ্ছে পিটিসি সাইট থেকে। প্রথমেই আপনাদের বলি আপনি যদি কোন কাজ এ দক্ষ হয়ে থাকেন ( যেমন গ্রাফিক্স ডিজাইন, কোন প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ,ডাটা এন্টি বা অন্য যেকোন ধরনের সফটওয়্যারে) যদি আপনার দক্ষতা থেকে থাকে তাহলে পিটিসি সাইটে কাজ করে নিজের মূল্যবান সময় নষ্ট করবেন না দয়া করে, সেক্ষেত্রে আপনি ফ্রিল্যান্সিং করে অধিক আয় করতে পারবেন, পিটিসি শুধু মাত্র তাদের জন্য যারা  যাদের দিনে কিছু ফ্রী সময় আছে কিন্ত কোন কাজ পারেন না ,বা অনলাইনে আয়ের ব্যাপারে একেবারে নতুন বা আয়ের জন্য কাজ শিখছেন। যে সাইটে কাজ করবেন তার সম্পর্কে গুগলে (Google) সার্চ করুন সাইটটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন।

মুলত ধরনের পিটিসি সাইট আছে:

  • ১. Elite PTC Site :- এই পিটিসি সাইট গুলো অনেক পুরনো, কোন রকম সমস্যা ছাড়াই নিয়মিত গ্রাহকদের পেমেন্ট করে আসছে। এই ধরনের পিটিসি সাইট খুব কম, অনেক খুজে বের করতে হয়, কিন্তু কাজ করার জন্য নিরাপদ।
  • ২. Legit PTC site :- পুরোনো সাইট, অতীতে কিছু সমস্যা দেখা গিয়েছিলো সেগুলো রিকভার করে বর্তমানে  গ্রাহকদের নিয়মিত পেমেন্ট করে যাচ্ছে, তবে স্ক্যাম হবার হাল্কা পাতলা সম্ভাবনাও আছে। কাজ করা যেতে পারে।
  • ৩. New PTC site :- এসব পিটিসি সাইট একবারেই নতুন লোভনীয় অফার যুক্ত, ম্যাক্সিমাম নিউ সাইট কিছুদিন পেমেন্ট করার পর স্ক্যাম হয়ে যায়, বাজারে এদের সংখ্যাই বেশি। কাজ করা প্রচুর রিস্কি এবং এখানে কাজ করে আয় করার সম্ভাবনা ৪০%। তাই নতুনদের এ ধরনের সাইট এড়িয়ে যাবার পরামর্শ রইলো।
  • ৪. Scam site!!! :- যেসব লিগিট বা নিউ সাইট গ্রাহকদের হটাৎ পেমেন্ট বন্ধ করে দেয়, উল্টা পালটা অ্যাকাউন্ট ব্যান করে দেয় সেগুলোকে Scam সাইট বলে। এসব সাইট থেকে ১০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০হাত দূরে থাকুন।

যদি কোন সাইট সম্পর্কে স্ক্যাম (scam) হিসেবে কোন তথ্যপান তাহলে ভুলেও সেই সাইটে কাজ করে সময় নষ্ট করবেন না।

প্রতি মাসে যারা ১০০$-৫০০$ আয় করতে চান

  • ১. আপনার হাতে যদি প্রতিদিন ৩০-৪৫ মিনিট সময় থাকে তবে এই ট্রিক্স গুলো দেখতে পারেন।
  • ২. প্রথমেই ১০টি এলিট পিটিসি সাইট নির্বাচন করুন। শুনতে খুব সহজ মনে হচ্ছে বাট এই খোজাটাই সবচে কঠিন। হাজার হাজার পিটিসি সাইট থেকে এলিট সাইট খুজতে জান বের হয়ে যাবে।  একটা কথা মনে রাখবেন এলিট সাইট পাওয়া এত সোজা কথা না, সাইট নির্বাচনের ক্ষেত্রে বেশি সময় দিন, গুগলে Top 10 Elite Ptc, Elite Ptc ইত্যাদি চটকদার কথা লিখে সার্চ দিন, দেখবেন অনেকেই ফাও ফাও সব সাইটকে এলিট লিখে রেফারেল ভিক্ষা চাইছে। সেই সব সাইটের নাম আবার গুগল এ লিখে সার্চ দিন, বিভিন্ন ফোরামে এবং ব্লগে যাবেন, ওই সাইট সম্পর্কে মানুষের  মন্তব্য দেখবেন।যদি গুগল এ খোজা খুজির সময় কোথাও ওই সাইট সম্পর্কে উল্টা পাল্টা বা স্ক্যাম হিসাবে তথ্য পান তবে ওই সাইট বাদ দিন। ২-১দিন খোজা খুজির কাজ করলে এমনি সব বুঝে যাবেন।
  • ৩. এমন এলিট সাইট নির্বাচন করুন যেগুলো রেফারেল ছাড়া আপনাকে দিনে ৩-৫সেন্ট পে করবে। কিছু সাইট আছে যেগুলো ৪টি এড দেখার বিনিময়ে আপনাকে ৪সেন্ট দিচ্ছে আবার কিছু সাইট আছে যেগুলো দিনে আপনাকে ঠিকই ৪সেন্ট পে করছে কিন্তু তার বিনিময়ে এড দেখাচ্ছে ১০-১২টি, মানে “পার এড পে” তারা খুব কম করছে, এতে করে আপনার বেশি সময় লাগবে ,সম্ভব হলে সেগুলো পরিহার করুন।
  • ৪. যেসব অরিজিনাল পিটিসি সাইটে দেখবেন প্রতি ক্লিকে আপনাকে সামান্য বেশি পে করছে বাট মিনিমাম পেমেন্টের পরিমান খুবই বেশি যেমন ১৫$ ২০$ এরকম তখন সেসব সাইটে অ্যাকাউন্ট খুলবেন না কারন রেফারেল ছাড়া সেই মিনিমাম পেমেন্টে পৌছাতে আপনার বছর কাবার হয়ে যাবে। সাধারানত যেসব এলিট অথবা লিগিট সাইটে  মিনিমাম ক্যাশ আউট ২$-৫$ সেগুলো সিলেক্ট করুন।
  • ৫. একটি পিসি অর্থাৎ একটি আইপি এড্রেস থেকে কোন পিটিসি সাইটে একটি মাত্র অ্যাকাউন্ট করা যাবে
  • ৬. একই আইপি থেকে একাধিক অ্যাকাউন্ট করার চেস্টা করবেন না এতে ২টি অ্যাকাউন্টই ব্যান হবার সম্ভাবনা থাকে।
  • ৭. বিভিন্ন লোভনীয় অফার যুক্ত নতুন পিটিসি সাইট পরিহার করুন, যেমন দেখলেন অ্যাকাউন্ট খুললেই ১$ বোনাস অথবা ১ম ১০০০ জন পাবেন প্রিমিয়াম অ্যাকাউন্ট এর সুবিধা ইত্যাদি ইত্যাদি, মনে রাখবেন এগুলো স্ক্যাম ছাড়া আর কিছুই না
  • ৮. কাজ শুরু করার আগে আপনার যেসব বন্ধু বান্ধব, কাজিন, রিলেটিভ যারা পিটিসি সম্পর্কে জানেনা, তাদের কনভেন্স করে আপনার ডাইরেক্ট রেফারেল করে নিন, নূন্যতম ১০জন হলে খুব ভালো হয়, কারন ব্লগে ব্লগে নিজের পিটিসি সাইটের গুনগান করে রেফারেল চাওয়া নিজের ব্যাক্তিত্ব নস্ট করে এবং অন্যের বিরক্তির কারন হয়। তাছাড়া ব্লগে ব্লগে রেফারেল ভিক্ষা চাওয়া আমার ব্যক্তিগত ভাবে পছন্দ না।
  • ৯. সবসময় রেফারেলের সংখ্যা বাড়াতে চেস্টা করবেন কারন মুলত রেফারেলের সংখ্যার উপরেই আপনার ইনকামের পরিমান নির্ভর করবে। আপনার রেফারেল লিঙ্ক যেকোন পিটিসি অ্যাকাউন্ট এর ব্যানার অপশন এ থাকবে। ওই লিঙ্কের মাধ্যমে আপনার বন্ধুদের রেজিস্ট্রেশন করান।
  • ১০. সবসময় চেস্টা করবেন পরিচিত বা অন্য কারো রেফারেল এ যোগ দিতে, কারন আপনি যদি রেফারেল ছাড়া যোগ দেন তবে সাইটের এডমিন আপনাকে প্রতি মাসে মাসে আপনার অনুমুতি না নিয়ে বিভিন্য মানুষের কাছে  রেন্টেড রেফারেল হিসাবে বিক্রি করবে আর এই জিনিশ টা আমার কাছে ভালো লাগে না। আমার জন্য কারো যদি একটু উপকার হয় তবে ক্ষতি কি?
  • ১১. যদি কাজ করার ইচ্ছা থাকে তবে একটু কস্ট করে নিয়মিত কাজ করবেন কারন সাইটে নিয়মিত কাজ না করলে অর্থাৎ দিনে নির্দিস্ট সংখ্যক বিজ্ঞাপন না দেখলে আপনার রেফারেল এর ক্লিকে টাকা পাবেন না এবং একটি নির্দিস্ট সময় ইনএক্টিভ থাকলে আপনার পিটিসি অ্যাকাউন্ট অটোমেটিকেলি ডিলিট হয়ে যাবে।
  • ১২.  অনেক সময় অ্যাকাউন্ট খুলতে ঝামেলা হতে পারে বিশেষত যারা মোবাইল কোম্পানি গুলোর শেয়ারড আইপি ইউজ করে যেমন গ্রামীণ, বাংলালিঙ্ক, রবি, এয়ারটেল ইন্টারনেট। সেক্ষেত্রে যে কোন ভালো আইপি চেঞ্জার সফটওয়্যার দ্বারা আইপি চেঞ্জ করে অ্যাকাউন্ট টা খুলে নিতে পারেন।
  • ১৩. আপনি কিছু অর্থের বিনিময়ে নির্দিস্ট সময়ের জন্য (যেমন ১মাস) কিছু রেফারেল কিনতে পারেন। তবে এক্ষেত্রেও সাবধান, বুঝে শুনে টাকা ইনভেস্ট করবেন আর এক সাথে অনেক টাকা ইনভেস্ট করার দরকার নাই, ধরা খেলে নিজের চুল ছেড়া ছাড়া কোন উপায় থাকবে না।
  • ১৪. আপনাদের একটা ছোট্ট হিসাব দেখাই, Suppose আপনার প্রথম মাস ১০টি অ্যাকাউন্ট খুললেন, প্রত্যেক সাইট  দিনে ৪ সেন্ট করে পে করে। সুতরাং রেফারেল ছাড়া দিনে ১০টি সাইট থেকে আয় করতে পারবেন ৪০সেন্ট করে এবং মাসে (৪০*৩০)=১২০০সেন্ট মানে ১২ডলার মানে ৮৪০টাকা। আবার, ম্যাক্সিমাম সাইট গুলো পার রেফারেল ক্লিকে করে পে করে .০০৫সেন্ট করে।  আপনার যদি ১০জন ডাইরেক্ট রেফারেল থাকে আর  তাদের ডেইলি এভারেজ ক্লিক হয় ২.৫ তবে একটি সাইট থেকে আপনার ডেইলি ইনকাম (.০০৫*২.৫*১০)= ০.১২৫সেন্ট + আপনার নিজের ইনকাম ৪সেন্ট= (০.১২৫+৪)= ০.১৬৫ সেন্ট , সুতরাং ৩০দিনে আয় (০.১৬৫*৩০)= ৪৯.৫০ ডলার বা ৫০$ (প্রায়) বা ৩৫০০টাকা।আবার অনেক সাইট আছে যাদের কাছ থেকে রেফারেল রেন্ট করা যায় এবং তাদের দ্বারা আয় করা যায়।যেমন নিয়োবাক্সে আমার রেন্ট রেফারেলের সংখ্যা ১০০+ এবং প্রতি মাসে এই সংখ্যা বাড়ছে।(.০০৫*২.৫*১০০)= ১.২৫ ডলার মাসে   (১.২৫*৩০)= ৩৭.৫০ ডলার। (৩৭.৫*১০)= ৩৭৫ডলার।এভাবে যদি ১০ টা সাইট থেকে আয় করতে পারেন এবং রেফারেল বাড়াতে পারেন, তাহলে আপনার আয় হতে পারে মাসে লক্ষ টাকার।
  • ১৫. ১০টি সাইটের পিছনে আপনাকে প্রতিদিন সময় ব্যয় করতে হবে ৩০-৪৫মিনিট। একটি একটি করে ১০টি সাইটের এড দেখতে কিন্তু অনেক সময় লাগবে, ৫টি করে সাইট ৫টি টেব এ খুলবেন। প্রতি এডে ক্লিক করার পর পর ই ব্রাউজারের ইমেজ লোড অফ করে দিন তবে এড তারাতারি লোড হবে। এড দেখা শেষ হলে আবার ইমেজ লোড অন করুন এবং নতুন এডে ক্লিক করার পর একই পদ্ধতি অবলম্বন করুন।
  • ১৬ . প্রতি ১৫দিনে একবার করে আপনার সাইট গুলো সম্পর্কে গুগলে খোজ খবর নিন যে সাইট ঠিক ঠাক আছে কিনা।

আমি যে সাইটগুলোয় কাজ করি :

1. NEOBUX

http://www.neobux.com/?rh=616B73756D6F6E

2.   CLIXSENSE

http://www.clixsense.com/?3843683

3. CLICKSIA

http://www.clicksia.com/index.php?ref=aksumon

4. INCENTRIA

http://www.incentria.com/ptc_ads.php?ref=aksumon

5. INCRASEBUX

http://www.incrasebux.com/register.php?r=gsLU59HDzw==

6. BUX P

http://buxp.org/?r=aksumon

7. CASTREAM

http://www.cashtream.com/banners/dynamic.php?username=aksumon

অবশ্যই  প্রত্যেক সাইটের User Name এবং Password (অবশ্যই ভিন্ন) E-mail,আলাদাভাবে লিখে রাখবেন। সাইটগুলোতে প্রতিনিয়ত কাজ করার জন্য Bookmark করে রাখা হবে বুদ্ধিমানের কাজ

আমার অন্য লেখাগুলো :

http://www.muktokontho.com/1028

http://www.muktokontho.com/969

http://www.muktokontho.com/928

http://www.muktokontho.com/1056

সবসময় দেশ এবং দেশের মানুষকে ভালবাসুন।

আপনার অনলাইনের আয় দেশের রেমিটেন্স বাড়াতে সাহায্য করবে যা এই শীতের সময় গরীব দু:খী মানুষের মুখে হাসি ফুটাবে।

আপনার পুরাতন কাপড় বা অতিরিক্ত শীতের কাপড় বা  একজোড়া  ছেড়া জুতা আমার বা আপনার পাশের গরীব মানুষ কে দেই

হয়ত বা আপনার এই উপহার দিতে পারে একজন মানুষের নতুন জীবন।

এ দেশ আমার,আপনার আসুন দেশের জন্য সবাই একটু একটু করে কাজ করি।

সবাই নামাজ পড়ুন আর নামাজ ই হতে পারে আপনার দেহের জন্য সঠিক ব্যায়াম ।

 

পূর্বে প্রকাশিত এখানে

About মোঃ আবুল বাশার

আমি একজন ছাত্র,আমি লেখাপড়ার মাঝে মাঝে একটা ছোট্ট প্রত্রিকা অফিসে কম্পিউটার অপরেটর হিসাবে কাজ করে,নিজের হাত খরচ চালানোর চেষ্টা করি, আমি চাই ডিজিটাল বাংলাদেশ হলে এবং তাতে সেই সময়ের সাথে যেন আমিও কিছু শিখতে পারি। আপনারা সকলে ৫ ওয়াক্ত নামাজ পরার চেষ্টা করি এবং অন্যকেও ৫ওয়াক্ত নামাজ পরার পরামর্শ দিন। আমার পোষ্ট গুলো গুরে দেখার জন্য ধন্যবাদ, ভাল লাগেলে কমেন্ট করুন। মানুষ মাত্রই ভুল হতে পারে,ভুল ত্রুটি,হাসি,কান্না,দু:খ,সুখ,এসব নিয়েই মানুষের জীবন। ভুলে ভড়া জীবনে ভুল হওয়াটা অসম্ভব কিছু নয়,ভুল ত্রুটি ক্ষামার দৃর্ষ্টিতে দেখবেন। আবার আসবেন।

Posted on 05/02/2012, in Internet, Online. Bookmark the permalink. 13 টি মন্তব্য.

  1. খুব ভাল লেগেছে । কিন্তু একাউন্ট কিভাবে করব সেটা বললে আরো ভালো হত না?

  2. ধন্যবাদ, কমেন্ট করার জন্য। কোন যায়গায় একাউন্ট খুলতে চান?

  3. আপনি খুব সুন্দর লেখেছেন।

  4. থন্যবাদ ভাই, কমেন্ট করার জন্য।

  5. ধরুন CleixSence একাউণ্ট করতে চাইলে কি করতে হবে?

    তাছাড়া পেমেণ্ট কিভাবে করবে তাও জানা তো দরকার।

    এ বিষয়ে বিস্তারিত জানালে সবাই উপকৃত হতো।

  6. মুঈনুদ্দীন

    জবাব না দিলে তাহলে আর উপকার করলেন কিভাবে???????????

  7. মুঈনুদ্দীন

    দয়া করে মেইলে জানান moinuddinchisty13@gmail.com

  8. আপনি জানার জন্য এখানেই েএকটু কষ্ট করে পড়ে নিন, ভাল করে দেখুন এবং পড়ুন এখানে সব বিস্তারীত লেখা আছে শুদু হেড লাইন দেখে যদি বলেন কিভাবে জানব?? একটু কষ্ট করে বিস্তারী পড়েনেন।

  9. আবুল বাশার আপনার সুন্দর উপস্হাপনা এবং পিটিসি সাইট সম্পর্কে বিশদ ধারণা দেয়ার জন্য ধন্যবাদ।
    আমি ক্লিকসেন্স,নিওবাক্স,ইনসেন্টরিয়া,ক্লিকসিয়া তে গত ২ বছর যাবত জড়িত এবং ৪ টা সাইট থেকেই টাকা পেয়েছি,যদিও টাকার পরিমাণ কম।
    আর এতে বুঝা যায় সব পিটিসি সাইট স্ক্যাম নয়।
    ১০% পিটিসি সাইট থেকে সত্যি আয় করা যায়।
    প্রতি মাসে কিভাবে ১০০$-৫০০$ আয় করতে পারব এ ব্যাপারে আরো কোন নতুন উপদেশ বা কৌশল জানতে চাই।

  10. অনেক সময় দেখা যায় পিটিসি সাইট থেকে অনেকে হাজার হাজার ডলার আয় করে যদি লেখক বলতেন এটা কিভাবে সম্ভব ? আমার মনে হয় এখানে কিছু টাকা পাওয়া যায় যেমন আমি তুলতে পেরিছি।
    আমাকে কি বলবেন কোন কোন সাইটে মেম্বারশীপ আপগ্রেড করলে বেশী সুবিধা পাওয়া যায়?
    রেফারেল বাড়ানোর কোন কৌশল যদি শেয়ার করতেন তাহলে বেশ উপকৃত হতাম।

  11. আসাদ ব্যাপারী

    আবুল বাশার আপনি লিংকগুলো ঠিক করে দেন।
    আপনার মূল পোস্ট এর লিংক সম্ভবত এটা http://www.muktokontho.com/burnsil/blog/1124

  12. ভাই আপনিও তো রেফারেল ভিক্ষা চাইলেন

পোষ্টটি আপনার কেমন লেগেছে? মন্তব্য করে জানান।

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: