বাউফলে রহস্যের আগুনের পর এবার সাপ আতঙ্ক


বাউফল প্রতিনিধি ॥ বাউফলে রহস্যের আগুনে নতুন করে যোগ হয়েছে সাপ আতঙ্ক। চলছে নানা কল্প কাহিনী। কবিরাজী, ঝাড়-ফুকসহ দোয়া, মিলাদ, মোনাজাতসহ চলছে সমজিদের ইমামদের ততবীর। তবুও থামছে না রহস্যের আগুন।  আচমকা দাউ দাউ করে জ্বলে উঠছে আগুন। আতংকিত পরিবার গুলো ঘরের মালামাল নিয়ে খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। দেবদেবীর নামে পূজা দেওয়াও রয়েছে অব্যাহত।
স্থানীয় আঃ জব্বার জানান, রহস্যের আগুনে শুক্রবার বিকেল থেকে নতুন করে যোগ হয়েছে সাপ আতংক। বাড়ির সামনের জমিতে দেখা গেছে একাধিক সাপের ছুটোছুটি। সাপের খবর পেয়ে শুক্রবার বিকেলেই ছুটে আসেন পাশ্ববর্তী বিলবিলাস গ্রামের সিপাহী জামে মসজিদের ইমাম মোজাম্মেল হোসেন। তিনি ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার থেকে ঘটনা শুনে বলেন, ‘বদজ্বীনের আছড় হতে পাড়ে। বাড়ি বন্ধ করতে হবে।’ শুরু হয়ে যায় ইমাম সাহেবের তদবির। বাড়ির সিমানা মুখে বাঁশ পুতে নারকেলেরে ছোবরা ও ধুপ একটি মাটির পাত্রে রেখে জ্বালিয়ে দেন আগুন। এরপর ওই পাত্রটি নিয়ে বাড়ির সীমানার চারপাশে একবার চক্কর দেন আর দোয়া মন্ত্র পড়েন। তিনি আশাকরছেন আল্লাহ এবার মাফ করবেন।
ভুক্তভোগী পরিবারের আজম আলী আকন বলেন, ‘থেমে থেমে বসত ঘড়ের এখানে সেখানে আগুন ধরছে। কোন কিছুতেই যেন মন মানছে না। আমরা গরীব মানুষ । আগুন আতংকে কামাই বানিজ্য সবই বন্ধ হয়ে গেছে।’
রহস্যময় আগুনের খবর পেয়ে দেখতে আসছেন পার্শ্ববর্তী উপজেলা দশমিনা থেকে রবিন কবিরাজ, তিনি  জানান, ‘আমরা লোকমুখে শুনলাম কালীমাতা ঠাকুরের জায়গার পাশে একটি কদম গাছ কাটার কারনে নাকি বসত বাড়িতে আগুন লাগছে। তাই দেখতে এসেছি।’
এদিকে বুধবার দুপুরে খলিল আকনের ঘরের কার্নিসে আগুন লাগার ঘটনায় সরেজমিনে পরিদর্শন করেছেন উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রুনিয়া বেগম। সময় যত গরাচ্ছে আগুন রহস্য জানতে পাশের এলাকা থেকে মানুষের ভির তত বাড়ছে। ছুটে আসছেন দূর-দুরান্তের থেকেও অনেক মানুষ।
এদিকে ওই বাড়ির লোকজনসহ এলাকার প্রায় তিন শতাধিক পরিবারের লোকজন রয়েছেন সর্বদা ভীত-সন্ত্রস্ত। পরিবারের জরুরি প্রয়োজনীয় মালামাল নিয়ে ঘরের বাহিরে অবস্থান করায় নিয়মিত নাওয়া খাওয়াও হচ্ছে না অনেকের।
সাবপুরা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খলিলুর রহমান জানান, ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে এপর্যন্ত সিদ্দিক রাড়ি, খলিল আকন, আছিয়া বেগম, আজিজ আকননের ঘর সহ ১২ টি ঘরে আগুন লাগার ঘটানায় কমপক্ষে ৬ টি ঘর পুড়ে ছাই হয়েছে। ফায়ার সার্বিসের লোকজন একাধিক বার ঘটনা স্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রন করেছে। ঘরের বেড়ায়, কার্নিশে আবার কখনও শিশুদের জন্য খাবার তুলে রাখা ব্যগে আগুনের ঘটনাকে সাধারন মানুষ সহজ ভাবে নিচ্ছেন না। উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রুনিয়া বেগম জানান, তিনি ঘটনা স্থল পরিদর্শন করে এসেছেন। আগুন রহস্য যেন থামছে না। এ বিষয়ে বাউফল ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার আরিফুর রহমান জানান, কি কারণে আগুন লাগছে তা তিনি বলতে পারছেন না। তবে এ ধরণের ঘটনা তার কাছে প্রথম মনে হচ্ছে।
এব্যপারে বাউফল থানার অফিসার ইনচার্জ নরেশচন্দ্র কর্মকার জানান, ঘটনা স্থলে পুলিশ মোতায়েন আছে। আগুন রহস্যের কোন কুল কিনারা পাওয়া যাচ্ছে না। এব্যপারে কুয়েটের রসায়ন বিভাগের প্রফেসর ডক্টর আবু ইউসুফ জানান, পত্রিকায় তিনি বিষয়টি দেখেছেন। তবে এ নিয়ে কল্প কাহিনীর সুযোগ নেই। তিনি বলেন, ‘ আাশপাশে ১০-১২ ফুট মাটির নীচে বা ডোবা নালায় মিথেন বা এ জাতীয় কোন গ্যাস থাকতে পারে। স্বাভাবিক ভাবে এ সময় কোন সোর্স পেয়ে তা জ্বলে উঠছে। এমনও হতে পারে যে, এক-দ’ুশ বছর আগের কোন বনভুমি প্রাকৃতিক কোন আলোড়নে মাটির নীচে চাপা পড়ে যাওয়ায় ওই এলাকায় মিথেন গ্যাস হয়েছে। লিক পয়েন্ট দিয়ে তা বেড়িয়ে আসায় এ ধরনের ঘটনা ঘটছে। এব্যপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আবুল কালাম আজাদ জানান, রহস্য উদঘাটিত হচ্ছে না। ব্যস্ততার কারনে তিনি ঘটনা স্থলে যেতে পারেননি। ক্ষতিগ্রস্তদের থেকে যোগাযোগ করা হলে তিনি তাদের সাহায্যের আশ্বাস দেন।

Advertisements

About মোঃ আবুল বাশার

আমি একজন ছাত্র,আমি লেখাপড়ার মাঝে মাঝে একটা ছোট্ট প্রত্রিকা অফিসে কম্পিউটার অপরেটর হিসাবে কাজ করে,নিজের হাত খরচ চালানোর চেষ্টা করি, আমি চাই ডিজিটাল বাংলাদেশ হলে এবং তাতে সেই সময়ের সাথে যেন আমিও কিছু শিখতে পারি। আপনারা সকলে ৫ ওয়াক্ত নামাজ পরার চেষ্টা করি এবং অন্যকেও ৫ওয়াক্ত নামাজ পরার পরামর্শ দিন। আমার পোষ্ট গুলো গুরে দেখার জন্য ধন্যবাদ, ভাল লাগেলে কমেন্ট করুন। মানুষ মাত্রই ভুল হতে পারে,ভুল ত্রুটি,হাসি,কান্না,দু:খ,সুখ,এসব নিয়েই মানুষের জীবন। ভুলে ভড়া জীবনে ভুল হওয়াটা অসম্ভব কিছু নয়,ভুল ত্রুটি ক্ষামার দৃর্ষ্টিতে দেখবেন। আবার আসবেন।

Posted on 18/03/2012, in News and tagged . Bookmark the permalink. এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান.

পোষ্টটি আপনার কেমন লেগেছে? মন্তব্য করে জানান।

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: